গোপাল বিশ্বাস -ঃনদীয়া-ঃ

উত্তরাখণ্ডে ট্রেকিং করতে গিয়ে প্রাকৃতিক বিপর্যয়ে মৃত পায়রাডাঙ্গা গোপাল পুরের প্রীতম রায়ের কফিনবন্দি মৃতদেহ আজ পৌঁছলো তার বাড়িতে।

প্রীতমের মৃতদেহ পৌঁছানো মাত্রই কান্নায় ভেঙে পড়ে তার বাবা-মা থেকে শুরু করে আত্মীয়-পরিজন।

প্রীতমকে শেষ দেখা দেখার জন্য পায়রাডাঙ্গায় প্রীতমের বাড়িতে সাধারণ মানুষ ভিড় জমিয়েছিল।

প্রীতমের বাড়িতে তাঁর মৃতদেহ বাড়িতে পৌঁছলে এখানে এসে উপস্থিত হয় রাজ্য সরকারের কারা মন্ত্রী উজ্জ্বল বিশ্বাস পায়রাডাঙ্গা গ্রাম পঞ্চায়েতের প্রধান বিজয়েন্দু বিশ্বাস এবং রানাঘাট এক নম্বর ব্লকের বিডিও সঞ্জীব সরকার সহ বহু সরকারি আধিকারিক ও বিভিন্ন রাজনৈতিক দলের প্রতিনিধিবৃন্দ।

জানা যায় ডাক্তারী ফাইনাল ইয়ারের ছাত্র 27 বছরের প্রীতম, গত 10 অক্টোবর তার পাঁচ বন্ধুর সঙ্গে উত্তরাখণ্ডে ট্রেকিং করতে যায়।

ডাক্তারি ফাইনাল ইয়ারের ছাত্র প্রিতমের বরাবরই ট্রেকিংয়ের ওপর ঝোঁক ছিল।

বেশ কয়েকদিন ধরে প্রীতমের কোন যোগাযোগ নেই বাড়ির সঙ্গে।

প্রীতমের বাবা প্রমিল কান্তি রায় একজন গ্রামীণ চিকিৎসক।

সামগ্রিক ঘটনায় শোকের ছায়া পরিবারে।

Leave a Reply

Your email address will not be published.