New Delhi : করোনাভাইরাস মহামারীর সময় সরকারি কর্মীরা কয়েকদিনের বেতন দান করেছেন। দু’বছরের জন্য স্থগিত রাখা হয়েছে সাংসদ তহবিল। তারপরও রাজনৈতিক জনসভার জন্য কি ভিভিআইপি বিমান ব্যবহার করতে পারেন নরেন্দ্র মোদী? এমনই প্রশ্ন তুলে নির্বাচন কমিশনে চিঠি দিলেন কংগ্রেস সাংসদ অধীর চৌধুরী।

শনিবার কমিশনকে লেখা চিঠিতে অধীর দাবি করেন, মোদীর একটি জনসভায় যোগ দিতে যাবেন বলে ঘণ্টার পর ঘণ্টা তাঁর গাড়ি আটকে দেয় স্পেশাল প্রোটেকশন গার্ড (এসপিজি)। তার জেরে পূর্ব-নির্ধারিত রাজনৈতিক কর্মসূচিতে যেতে পারেননি। চূড়ান্ত হেনস্থার শিকার হন বলেও দাবি করেন। মুখ্য নির্বাচন কমিশনার সুনীল অরোরাকে উদ্দেশ করে লেখা চিঠিতে অধীর বলেন, ‘যে কোনও সরকারি কারণে প্রধানমন্ত্রীর নিরাপত্তা সবথেকে গুরুত্বপূর্ণ বিষয় হওয়া উচিত। কিন্তু প্রধানমন্ত্রী যখন রাজনৈতিক কর্মসূচিতে যোগ দিতে আসছেন, তখন কোনওভাবে যেন অন্য রাজনৈতিক নেতা হেনস্থার শিকার না হন।’

শুধু তাই নয়, করোনা প্রকোপের মধ্যে ভিভিআইপি ব্যবহারে যৌক্তিকতা নিয়েও প্রশ্ন তুলেছেন অধীর। চিঠিতে লিখেছেন, ‘রেল মন্ত্রকের রাষ্ট্রমন্ত্রী হিসেবে আমি কখনও রাজনৈতিক কারণে সরকারি গাড়ি ব্যবহার করিনি। আমি বুঝতে পারছি না, ভিভিআইপি বিমান কি কোনও রাজনৈতিক কর্মসূচির জন্য ব্যবহার করা যায়? যখন ভারত এত গরিব দেশ, আর করোনাভাইরাস মহামারীর সময় সব সরকারি কর্মীরা নিজেদের কয়েকদিনের বেতন দান করেছেন এবং পরপর দু’বছর সাংসদ তহবিল স্থগিত রাখার ফলে ভোটারদের উন্নয়নমূলক কাজ থমকে আছে।’

Leave a Reply

Your email address will not be published.